আজ মঙ্গলবার| ২২ জুন, ২০২১| ৮ আষাঢ়, ১৪২৮

সখিপুরে শ্বশুরের ধর্ষণে বাকপ্রতিবন্ধী পুত্রবধূ অন্তসত্ত্বা!

শুক্রবার, ২৬ জুন ২০২০ | ৯:১৮ অপরাহ্ণ | 3191 বার

সখিপুরে শ্বশুরের ধর্ষণে বাকপ্রতিবন্ধী পুত্রবধূ অন্তসত্ত্বা!

মামলার এজহার ও ভুক্তভোগী সূত্রে জানাগেছে, ৪ বছর আগে সখিপুর থানার আরশিনগর ইউনিয়নের হাজী কান্দির বাসিন্দা ধর্ষক বারেক সরদারের ছেলে মালেশিয়া প্রবাসী সজিব সরদারের সাথে একই এলাকার বাসিন্দা ঐ নারীর বিয়ে হয়। এ দম্পত্তির দেড় বছর বয়সী একজন ছেলে সন্তান রয়েছে। প্রায় ৮ মাস আগে ছেলে বিদেশ থাকার সুযোগে নিজের বাকপ্রতিবন্ধী পুত্রধূকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে বারেক সরদার। এ সময় বিষয়টি কাউকে জানানো হলে তাকে মেরে ফেলার হুমকি দেয় সে। দীর্ঘদিন ভয়ের কারনে বিষয়টি প্রকাশ না করলেও ৭ মাসের অন্তসত্ত্বা হওয়ার পর এলাকাজুড়ে জানাজানি হয় শ্বশুর কতৃক পুত্রবধূ ধর্ষনের ঘটনাটি।

এ বিষয়ে গতকাল বৃহস্পতিবার বিকেল ৫ টায় সখিপুর থানায় একটি ধর্ষণ মামলা দায়ের করেছে মেয়ের চাচা নুরে আলম। মামলার পরেরদিনই আসামীকে আটক করেছে সখিপুর থানা পুলিশ।

ধর্ষনের শিকার ঐ বাকপ্রতিবন্ধী নারী কাগজে লিখে জানায়, ৭-৮ মাস আগে এক রাতে তার শ্বশুর বারেক সরদার তার রুমে গিয়ে তাকে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে। এ বিষয়টি প্রকাশ করলে তাকে মেরে ফেলার ভয় দেখায় সে। পরে শ্বাশুরিকে বিষয়টি জানানোর পর শ্বাশুরীও তাকে মারধর করে। এখন সে ৭ মাসের অন্তসত্ত্বা।

গ্রেফতারের আগে বারেক সরদার বলেন, বিষয়টি সমাধানের জন্য আমি মুরুব্বিদের কাছে গিয়েছি। মুরুব্বিরা যে শাস্তি দিবে আমি তা মেনে নেবো।

ভুক্তভোগীর চাচা বলেন, আমার ভাতিজির মা নেই। বাবা বিদেশ থাকে। তাকে বিয়ে দেয়ার সময় বারেক সরদার ও তার ছেলেকে অনেক টাকা দিয়েছি। বিয়ের পরও প্রতিনিয়ত টাকা-পয়সা দিচ্ছি। একটু সুখের আশায়। এখন কি ঘটনা ঘটানো হলো! আমরা তার যথাযথ বিচার চাই।

এ বিষয়ে সখিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জনাব এনামুল হক বলেন, ঘটনাটি আমাদেরকে অবগত করে ঐ নারীর চাচা গতকাল একটি মামলা দায়ের করেছেন। সে অনুযায়ী আসামীকে গ্রেফতার করে আদালতে পাঠানো হয়েছে।


সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  
ফেইসবুক পাতা
error: কপি করা নিষেধ !!