আজ মঙ্গলবার| ২২ জুন, ২০২১| ৮ আষাঢ়, ১৪২৮

শরীয়তপুরে ঈদের কাপড় পড়া হলোনা শিশু তানিশার, আগের দিনই পড়াতে হলো কাফনের কাপড়

মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০ | ২:০০ অপরাহ্ণ | 4757 বার

শরীয়তপুরে ঈদের কাপড় পড়া হলোনা শিশু তানিশার, আগের দিনই পড়াতে হলো কাফনের কাপড়

খাটের উপর পড়ে আছে ৩ বছরের শিশু তানিশার ঈদের পোশাক। স্বপ্ন ছিল আগামীকাল ঈদ উপলক্ষে পরিধান করবে নতুন পোশাক। বাবা প্রবাসে থাকলেও মায়ের ভালবাসা আর দাদা-দাদীর স্নেহে মমতায় বেড়ে উঠছিল তানিশা। কিন্তু ভাগ্যের কি নির্মমতা! ঈদের কাপড় আর পড়া হলো না তানিশার, এর পরিবর্তে শেষবারের মত কাফনের কাপড়ই জড়ানো হয়েছে তার নিঃস্পাপ দেহে।

তানিশাকে হারিয়ে ঈদের আনন্দের বদলে তার পরিবারের মাঝে নেমে এসেছে বুক ফাঁটা বেদনা। ঈদের দিন তার বাড়িতে গিয়ে দেখা যায়, মায়ের চিৎকারে ভারী হয়ে উঠেছে পুরো এলাকা। স্বজন প্রতিবেশী সবাই জড়ো হয়েছে উঠানে। শান্তনার বাঁধন ছিড়ে স্বজনদের মুখ থেকে বেরিয়ে আসছে হাউমাউ করে কান্নার আওয়াজ। উঠানে গড়িয়ে গড়িয়ে মেয়ের স্মৃতি আওড়াচ্ছে তার মা। সবাই চেয়ে দেখছে সে এক করুণ দৃশ্য, এক বুক ফাঁটা আর্তনাদ।

ঈদের আগের দিন গত রোববার দুপুরে একটি মাহিদ্রা ধাক্কা দেয় তানিশাকে। সখিপুর থানার সখিপুর টু গৌরাঙ্গ বাজার সড়কে এ ঘটনা ঘটে।
মাহিন্দ্রাটি চালকের বদলে হেল্পার চলাচ্ছিল। আর অদক্ষ হেল্পারের কারনেই এ দুর্ঘটনা ঘটেছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।

তানিশা সখিপুর ইউনিয়নের কাঁচিকাটা কান্দির বাসিন্দা প্রবাসী আজহারুল দেওয়ানের মেয়ে। গুরুতর আহতবস্থায় তাকে ভেদরগঞ্জ উপজেলা হাসপাতাল নেয়া হলে তাকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে রেফার করে চিকিৎসকরা। অবস্থার অবনতি হলে সেখান থেকে ঢাকা নেয়ার পথে সে মারা যায়।

এ ঘটনায় কোন প্রকার মামলা কিংবা অভিযোগ করা হয়নি। অভিযুক্ত চালক কিংবা গাড়িও আটক হয়নি। জানাগেছে, ঘটনাটি স্থানীয়ভাবে ধামা চাপা দেয়ার চেষ্টা করছে মালিকপক্ষ।

শরীয়তপুরে তবুও লাগামহীন মাহিন্দ্রা-নসিমন।


সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  
ফেইসবুক পাতা
error: কপি করা নিষেধ !!