আজ মঙ্গলবার| ২২ জুন, ২০২১| ৮ আষাঢ়, ১৪২৮

নড়িয়ায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, বৃষ্টির মত বোমা বিষ্ফোরণ

সোমবার, ১৮ মে ২০২০ | ১০:২৮ অপরাহ্ণ | 4311 বার

নড়িয়ায় দুই গ্রুপের সংঘর্ষ, বৃষ্টির মত বোমা বিষ্ফোরণ

নড়িয়ায় উপজেলার রাজনগরে আওয়ামীলীগের দুই গ্রুপে সংঘর্ষ।শতাধিক বোমার বিস্ফোরনে নারী ও শিশু সহ অন্তঃত ৩০জন আহত হয়েছে। আহতদেরকে শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে । উভয় গ্রুপে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আহত জাহাঙ্গীর মাদবর , মোহাম্মদ আলী মাদবর ও নড়িয়া থানা সুত্রে জানাযায়, শরীয়তপুর জেলার নড়িয়া উপজেলার রাজনগর ইউনিয়নের জমির উদ্দিন মাদবর কান্দি গ্রামে শিশুদের খেলনা বোমার কথা নিয়ে কথা কাটা কাটিতে রাজনগর ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা সুলতান মাদবর গ্রুপ ও ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি মোঃ শওকত মোড়ল সমর্থকদের মধ্যে সোমবার সকাল সাড়ে ১১টায় সংঘর্ষ হয়। এ সময় উভয় গ্রুপে সমর্থকরা দেশীয় অস্ত্রশস্ত্রে সজ্জিত হয়ে বৃষ্টির মত শতাধিক বোমার বিস্ফোরন ঘটায়। দুই গ্রুপের লোকজনের মাঝে প্রায় ২ ঘন্টাব্যাপী সংঘর্ষ চলতে থাকে পরে নড়িয়া থানা পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করে।

এ ঘটনায় বোমায় ও দেশীয় অস্ত্রের আঘাতে শওকত মোড়ল গ্রুপের মোঃ আলী মাদবর (৬৫), বিল্লাল মাদবর(৪০), শাহজাহান মাদবর(৪০), আলমগীর মাদবর (৫০), আয়শা বেগম(৫৫) সহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছে। রাজনগর ইউনিয়নের সাবেক চেয়াম্যান ও আওয়ামীলীগ নেতা সুলতান মাদবরের সমর্থক জাহাঙ্গীর মাদবর(৩০), শাহিনুর মাদবর (৩২), মিজান মাদবর(২৫), নাছির মাদবর (৪৫), মোবারক মাদবর (৩৫), আরিফ মাদবর (৩০), ইব্রাহিম মাদবর (২৫), জলিল মাদবর(৫০), আমিন মাদবর(৪০), জাহানারা বেগম(৫০) সহ কমপক্ষে ৩০জন আহত হয়েছে ।

আহতদের শরীয়তপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। এলাকায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সংবাদ লেখা পর্যন্ত কোন মামলা হয়নি।

এ ব্যাপারে রাজনগর ইউনিয়নের আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি শওকত মোড়ল বলেন, ছোট দুটি ছেলে ইমরান ও বাহাদুর পাশের বাড়ি বেড়াতে আসা এক ভাগ্নে কে বলে মাল আছে। ঐ ছেলে উত্তর দেয় মাল নেই। পাশে বসা এক লোক গিয়ে ইমরান ও বাহাদুরকে চড় থাপ্পর মারে। এ নিয়ে সংঘর্ষেও সুত্রপাত হয়েছে। পরে এ ঘটনা বড় আকারে এলাকার দুটি গ্রুপের মধ্যে ছড়িয়ে পড়ে। এ সময় উভয় গ্রুপের কমপক্ষে ৩০ জন আহত হয়। আহতদের সদর হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য নেয়া হয়েছে। এ ঘটনায় মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

এ ব্যাপারে সুলতান মাদবর বলেন, ছোট ছেলেদের ঘটনাকে কেন্দ্র করে আমার সমর্থকদের বাড়ি ঘরে হামলা করে প্রতিপক্ষের লোকেরা শতাধিক বোমার বিস্ফোরন ঘটনায়। আমাদের লোকজনদের মারপিট করেছে। এ ঘটনায় আমার সমর্থক কমপক্ষে ২০জন আহত হয়েছে। আমরা এর বিচার চাই।

নড়িয়া থানার ওসি মোঃ হাফিজুর রহমান ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, রাজনগরের দু’গ্রুপে সংঘর্ষ হয়েছে। পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে নেয়। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে। এ পর্যন্ত কেউ লিখিত অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।


সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  
ফেইসবুক পাতা
error: কপি করা নিষেধ !!