আজ সোমবার| ২০ সেপ্টেম্বর, ২০২১| ৫ আশ্বিন, ১৪২৮

শরীয়তপুরের সখিপুরে ৫ পরিবার হোম কোয়ারেন্টিনে, ২ বাড়ি লক ডাউন

সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০ | ১০:২৯ অপরাহ্ণ | 2076 বার

শরীয়তপুরের সখিপুরে ৫ পরিবার হোম কোয়ারেন্টিনে, ২ বাড়ি লক ডাউন

শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলায় করোনাক্রান্ত হয়ে মৃত আমানউল্লাহ বেপারীর সংস্পর্শে আসায় ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুরে আরো ৩ বাড়ির লোকজনকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠিয়েছে প্রশাসন। সোলেমান মাল (৪২) সখিপুর ইউনিয়নের ইউসুফআলী সরকার কান্দির বাসিন্দা সেকু মালের ছেলে। করোনা ভাইরাসে মৃত আমানউল্লাহ বেপারীর আত্মীয় সে। সে মৃত আমানউল্লাহ বেপারীর বিছানাপত্র ও কাপড়-চোপড় ধৌত ও পরিস্কার করেছিল বলে জানাগেছে। এছাড়া ডিএম খালি ইউনিয়নের ফরহাদ মুন্সির বাড়ির লোকজনকে এবং চরভাগা ইউনিয়নের বাচ্চু প্রধানীয়ার বাড়ির লোকজনকে হোম কোয়ারেন্টিনে পাঠানো হয়েছে। এরাও মৃত আমানউল্লাহ বেপারীর আত্মীয়।

এছাড়া একই ঘটনায় ভেদরগঞ্জ উপজেলার চরসেনসাস ইউনিয়নে মৃত আমানউ ল্লাহ বেপারীর মেয়ের বাড়ি এবং ডিএমখালী ইউনিয়নে তার বোনের বাড়ি লক ডাউন করা হয়েছে।

তাছাড়া পৃথক ঘটনায় চরভাগা ইউনিয়নের কাজী কান্দি গ্রামে হোমকোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে আরো এক জনের পরিবার।

এ বিষয়ে ভেদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব তানভীর আল নাসীফ ও সখিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা এনামুল হক বলেন, করোনায় মৃত ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছে এমন তথ্যের ভিত্তিতে সোলায়মান মাল, ফরহাদ মুন্সি ও বাচ্চু প্রধানীয়ার বাড়ির লোকজনকে হোম কোয়ারেন্টিনে রাখা হয়েছে। স্থানীয় সবাইকে সচেতন করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, শনিবার ঢাকায় করোনা আক্রান্ত হয়ে মৃত আমান উল্লাহ বেপারি (৮০) শরীয়তপুরের নড়িয়া উপজেলার ডিঙ্গামানিক ইউনিয়নের থিরোপাড়া গ্রামের বাসিন্দা। গত ১ এপ্রিল অসুস্থ হয়ে পড়লে চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানে পরীক্ষা নিরীক্ষার পর তিনি করোনা আক্রান্ত বলে জানা যায়। পরে চিকিৎসাধীন অবস্থায় সেখানেই তিনি মৃত্যুবরণ করেন। এ ঘটনার পর তার ২৭ প্রতিবেশীর বাড়ি সহ বিভিন্ন এলাকার আত্মীয়র বাড়ি লকডাউন করা হয়।


সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  
ফেইসবুক পাতা
error: কপি করা নিষেধ !!