আজ মঙ্গলবার| ২৬ অক্টোবর, ২০২১| ১০ কার্তিক, ১৪২৮

সখিপুরে সাবেক মেম্বারের কান্ড!! আহত ৬৫ বছরের বৃদ্ধা!

সোমবার, ০৫ এপ্রিল ২০২১ | ১১:৩৫ অপরাহ্ণ | 2501 বার

সখিপুরে সাবেক মেম্বারের কান্ড!! আহত ৬৫ বছরের বৃদ্ধা!
কামাল বেপারীর ছবি

“বাড়িতে পুরুষদের না পেয়ে বৃদ্ধ মহিলা সহ অন্যসব মহিলাদের মারধরের অভিযোগ তাদের বিরুদ্ধে”

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার সখিপুর ইউনিয়নে জমি সংক্রান্ত বিরোধের জের ধরে ৬৫ বছর বয়সী বৃদ্ধ মহিলাকে মারধরের অভিযোগ উঠেছে সাবেক এক ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে। এ সময় বাড়ির অন্যান্য বৃদ্ধ পুরুষ ও মহিলাদেরকেও মারধর করা হয় বলে অভিযোগ তার বিরুদ্ধে। কামাল বেপারী সখিপুর ইউনিয়নের ১নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার। প্রতিবেশী জেসমিন বেগম (৩৫) খোদেজা বেগম (৬০) সহ অন্যান্যদের মারধরের অভিযোগে শনিবার এই ইউপি সদস্যের বিরুদ্ধে সখিপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে ভুক্তভোগী বৃদ্ধার ছেলে সাইজুদ্দিন সরদার।

সখিপুর থানা ও অভিযোগসূত্রে জানাগেছে, সখিপুর ইউনিয়নের বেপারী কান্দির বাসিন্দা সাবেক মেম্বার কামাল বেপারীদের সাথে ভুক্তভোগীদের দীর্ঘদিনের জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছিলো। ভুক্তভোগীদের অভিযোগ, বেপারী কান্দির এলাকার ঐ জমিতে কয়েকদিন আগে জোরপূর্বক সীমানা পিলার বসায় কামাল বেপারীর লোকজন। আবার ঐ পিলার তুলে ফেলার দোষ চাপিয়ে সাইজুদ্দিন সরদারের পরিবারে উপর হামলা চালায় কামাল বেপারীর লোকজন । এ সময় সাইজুদ্দিন সরদার বাড়িতে না থাকায় বাড়ির মহিলাদের বেঁধড়ক মারধর করে তারা।

এ ব্যাপারে ভুক্তভোগী জিয়াসমিন বেগম (৪০) বলেন, আমার স্বামী দীর্ঘদিন প্রবাসে রয়েছে, আমরা মহিলাররা কিছুই জানিনা। গত কাল কামাল বেপারীর লোকজন এসে আমাদের বাড়িতে খুটে গেঁথে সীমানা দিয়ে যায়। তারা প্রভাবশালী হওয়াতে কিছুই বলেত পারিনা। আমাদের বাড়ীর সীমানায় খুটি বসানোর কারণ জিজ্ঞেস করতেই তার লোকজন আমাদরকে মারধোর শুরু করে । আমার বৃদ্ধ শ্বশুর ও শাশুড়ীকে মারধর করে। আমরা এর উপযুক্ত বিচার চাই।

সাইজুদ্দিন সরদার বলেন, আমার মা বাবা বৃদ্ধ মানুষ কামাল বেপারী এলাকার মুরুব্বি ও সাবেক মেম্বার সে প্রভাব খাটিয়ে আমাদের জমির উপর খুটি বসায়। পরে তারাই বিনা করণে আমার মা বাবকে লাথি ও কিল ঘুসা মারে, আমার ভাবীকে মেরে আহত করে এবং আমার দোকান থেকে ১ লক্ষ টাকা নিয়ে আসে। আমরা সখিপুর থানায় অভিযোগ দায়ের করেছি। আমরা এর সঠিক বিচার চাই।

কিন্তু এ ব্যাপারে কামাল বেপারী বলেন, আমি কাউরে মারধর করি নাই। তারা আমার পাট ক্ষেত ভেঙে সীমানা উঠাইয়া আমার সীমানায় চাষ করে ফেলে। এ নিয়ে আমার লোকজন উত্তপ্ত হলে আমি তাদেরকে বাঁধা দেই। তারা কোন ধরনের লোক এলাকাবাসী জানে তারা কাউকে মানে না।

এ ব্যাপারে সখিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি মো. আসাদুজ্জামান হাওলাদার বলেন, আমরা একটা অভিযোগ পেয়েছি তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  
ফেইসবুক পাতা
error: কপি করা নিষেধ !!