আজ সোমবার| ১৮ অক্টোবর, ২০২১| ২ কার্তিক, ১৪২৮

শরীয়তপুরে গোয়ালঘরে আগুন দিয়ে কৃষকের গরু-বাছুর হত্যা

শুক্রবার, ১৫ মে ২০২০ | ১১:৫৭ পূর্বাহ্ণ | 1851 বার

শরীয়তপুরে গোয়ালঘরে আগুন দিয়ে কৃষকের গরু-বাছুর হত্যা
আগুনে পুড়ে আহত একটি গাভী

শরীয়তপুর সদর উপজেলার চন্দ্রপুরে দ্ররিদ্র কৃষক মোতাজ্জেল ওরফে মনির মল্লিকের গোয়ালঘরে দুর্বৃত্তদের দেওয়া আগুনে তিনটি গরু দগ্ধ ও একটি গাভী পুড়ে মারা গেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। বৃহস্পতিবার (১৪ মে) এ তথ্য নিশ্চিত করেন উপজেলায় সন্তোষপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ আসলাম মিয়া।

ক্ষতিগ্রস্ত মনির কান্না জড়িত কণ্ঠে বলেন, চারটি গরুই ছিল আমার বাচার একমাত্র অবল্বন। তিনটি গাভীর পেটে বাচ্চা ছিল। এলাকায় আমার সঙ্গে কারও শত্রুতা নেই। আমি কোনো দলবল করিনা। কে আমার এমন সর্বনাশ করলো আমি বলতে পারছি না। প্রশাসনের কাছে আমি এর সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি করছি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, উপজেলায় সন্তোষপুর গ্রামে বুধবার (১৩ মে) রাত সাড়ে ৯টার দিকে প্রথমে মনির মল্লিকের প্রতিবেশী আব্দুর রব মল্লিকের পাকের ঘরে আগুন লাগে। সেসময় এলাকাবাসীর প্রচেষ্টায় একপর্যায়ে আগুন নেভানো হয়। এরপর সবাই যার যার বাড়িতে গিয়ে ঘুমিয়ে পড়লে রাত ১টার দিকে দরিদ্র কৃষক মনির মল্লিকের গোয়ালঘরে আগুন লাগে। টের পেয়ে মনিরসহ এলাকাবাসী মিলে এক ঘণ্টা চেষ্টার পর সে আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে। ততক্ষণে মনিরের একমাত্র সম্বল চারটি গরুর সবগুলোই দগ্ধ হয়। এর মধ্যে একটি গাভী মারা যায়। বাকি দুইটি গাভী ও একটি বাছুরের অবস্থা আশঙ্কাজনক। আগুন নিভাতে গিয়ে মনিরও দগ্ধ হয়েছেন।

কে বা কারা আগুন লাগিয়েছে তা কেউ বলতে পারেননি। তবে গত তিন মাস যাবত দু’একদিন পর পর ওই এলাকার কারো পাকের ঘরে, কারো বসতঘরে, কারো গোয়ালঘরে, কারো লাকড়ির পারায় আগুন লাগার ঘটনা ঘটে আসছে বলে জানান এলাকাবাসী। কিন্তু এ পর্যন্ত কাউকেই চিহ্নিত করা করা যায়নি।

সন্তোষপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ আসলাম মিয়া বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। এ বিষয়ে তদন্ত চলছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত কারও প্রমাণ পাওয়া গেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  
ফেইসবুক পাতা
error: কপি করা নিষেধ !!