আজ বুধবার| ৫ অক্টোবর, ২০২২| ২০ আশ্বিন, ১৪২৯

ভেদরগঞ্জ-সখিপুর ইউপি নির্বাচন || আচরণবিধি ভঙ্গের নানা কান্ড

বুধবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০২১ | ২:২১ অপরাহ্ণ | 1205 বার

ভেদরগঞ্জ-সখিপুর ইউপি নির্বাচন || আচরণবিধি ভঙ্গের নানা কান্ড
আচরণবিধি ভঙ্গ করে দেয়ালে লাগানো হয়েছে পোস্টার

শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রার্থী বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণ বিধি ভঙ্গের অভিযোগ উঠেছে। নিয়মনীতি উপেক্ষা করে মানুষের দেয়ালে দেয়ালে লাগানো হচ্ছে পোষ্টার। সকাল ৮টা থেকে শুরু করে রাত ১০টা পর্যন্ত চলে ডিজিটাল সাউন্ড সিস্টেম ও মাইকিং প্রতিযোগীতা। রাস্তা আটকিয়ে চলে একের পর এক মিছিল, মোটরসাইকেলের বহর। ফলে ভোটার ও সাধারণ জনগনের মধ্যে তীব্র ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। তীব্র শব্দ দূষণে বিপাকে পড়েছে স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা। কিন্তু এসব ক্ষমতাবন প্রার্থীদের নিয়মবহির্ভূত কর্মকান্ডের বিষয়ে কিছুই বলতে পারছে না ভুক্তভোগী জনসাধারণ।

Advertisements

তবে এরই মধ্যে আচরণবিধি লংঘনকারী প্রার্থীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিতে বিভিন্ন এলাকায় প্রশাসনের তৎপরতা দেখা গেছে।

Advertisements

জানাগেছে, চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে শরীয়তপুরের ভেদরগঞ্জ উপজেলার ১২টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থী হিসেবে ৫৯ জন, সাধারণ সদস্য পদে ৩২৯ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা প্রার্থী হিসেবে ১১০ জন মনোনয়পত্র দাখিল করেছেন। তফসিল অনুযায়ী আগামী ২৬ ডিসেম্বর নির্বাচনের অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে উপজেলাটিতে।

Advertisements

সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, উপজেলার সখিপুর, তারাবুনিয়া, চরভাগা, রামভদ্রপুর, ছয়গা সহ বেশীরভাগ ইউনিয়নেই নির্বাচনী আচরণ বিধি ভেঙ্গে দেয়ালে, টিনের বেড়ায় এবং মানুষের ঘরের টিনে পোস্টার লাগাচ্ছে প্রার্থীর লোকজন। নিয়ম অনুযায়ী দুপুর ২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মাইকিং কিংবা নির্বাচনী প্রচারণা করার কথা থাকলেও সকাল ৮টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত বেপরোয়া শব্দে মাইকিং করা হচ্ছে এলাকা জুড়ে। বিভিন্ন বাজারে বাজারে স্থায়ী অফিস বসিয়ে সারাদিনই বিকট শব্দে বাজানো হয় বিভিন্ন গান, স্লোগান। রাস্তা আটকিয়ে কোন কোন প্রার্থী দিচ্ছেন মোটরসাইকেল বহর ও মিছিল।

Advertisements

উপজেলার সখিপুর ইউনিয়নের বাসিন্দা রিপন মিয়া, রতন মিয়া বলেন, সকাল ৮টা থেকে রাত ১০টা পর্যন্ত নির্বাচনী মাইকিংয়ের কারনে পড়াশুনা ঘুম কিছুই করতে পারি না। মানসিকভাবে অসুস্থ হয়ে যাচ্ছি। আমরা এসব থেকে প্রতিকার চাই।

Advertisements

তাসনিমুল ইসলাম বলেন, নির্বাচনী আচরণবিধি কোন ইউনিয়নেই মানা হচ্ছে না। যে যার মত দেয়ালে পোস্টার, মাইকিং, মিছিল ও বহর দিচ্ছে। এতে করে আমরা চরম অশান্তির মধ্যে পড়ে গেছি।

Advertisements

তবে এসব নির্বাচনী আচরণবিধি ভঙ্গের বিষয়ে কোন প্রকার বক্তব্য দিতে রাজি হননি প্রার্থীরা। বলছেন, তাদের অজান্তেই সমর্থকরা এসব পোষ্টার লাগাতে পারে।

Advertisements

এ বিষয়ে ভেদরগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জনাব তানভীর আল নাসীফ বলেন, নির্বাচনী আচরণ বিধি কেউ যেন ভঙ্গ করতে না পারে সে বিষয়ে আমরা সর্বোচ্চ কাজ করে যাচ্ছি। এ সংক্রান্ত কোন অভিযোগ পেলো আমরা তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহন করবো।

Advertisements
Advertisements

সর্বশেষ  
জনপ্রিয়  
ফেইসবুক পাতা
error: কপি করা নিষেধ !!